সংক্ষিপ্ত স্কোর



বরিশাল বুলস :২০ ওভারে ১৩২/৬ (মুশফিক ৩৬, রইস ২৫*, নাদিফ ২১; জায়েদ ১/১২, বোপারা ১/২৩, সাকিব ১/৩১)



ঢাকা ডায়নামাইটস : ১৯.৪ ওভারে ১৩৫/৬ (নাসির ৩৪, সাঙ্গাকারা ৩২, মোসাদ্দেক ২৩; তাইজুল ২/১৯, মনির ১/১২, রাব্বির ১/১৪)



ফলঃ ঢাকা ডায়নামাইটস ৪ উইকেটে জয়ী


পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ স্থান নিয়ে বিপিএলে চলছে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা। ৩৫ ম্যাচে অনেকবারই বদল হয়েছে শীর্ষ দলের মুকুট। এবার টানা দুই ম্যাচ জিতে সেখানে আবারও আসীন হলো ঢাকা ডায়নামাইটস। মুশফিকুর রহিমের বরিশাল বুলসকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল।



নির্দিষ্ট কোনো খেলোয়াড়ের নয়, বরিশালের বিপক্ষে জয় এলো ঢাকার প্রায় সকল খেলোয়াড়ের সম্মিলিত অবদানে। ব্যাট হাতে ২২ রান ও ১ উইকেট নিয়ে যাতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ম্যাচ সেরা সাকিব আল হাসান। 



১৩৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই মেহেদী মারুফের উইকেট হারায় ঢাকা। দ্বিতীয় উইকেটে ৫১ রানের জুটি গড়ে তোলেন কুমার সাঙ্গাকারা ও সাকিব আল হাসান। পরপর দুই ওভারে তাঁরা দুজন ফিরে গেলে ইনিংস সর্বোচ্চ ৫৫ রানের জুটি গড়েন মোসাদ্দেক হোসেন ও নাসির হোসেন। দারুণ ব্যাট করেছেন নাসির। ২৯ বলে ৩৪ রানের ইনিংসে মেরেছেন ২টি চার ও ১টি ছক্কা। শেষের দিকে তাঁরা আউট হয়ে গেলেও কোনো বিপদ ঘটতে দেননি ডোয়াইন ব্রাভো ও রবি বোপারা।



বিপিএলের এবারের আসরে প্রথমবারের মত ওপেনিং করলেন শাহরিয়ার নাফীস। ৯ ম্যাচে ২৫১ রান করা ব্যাটসম্যান এ ম্যাচে হলেন ব্যর্থ। ১৩ বল খেলে করলেন মাত্র ৩ রান। ওপেনিং সঙ্গী দিলশান মুনাবীরাও দ্রুতই ফিরে যান মেহেদী মারুফের থ্রোতে রান আউট হয়ে। দুই ওপেনারের মন্থর সূচনার পর আর ঝড় তোলা হয়নি বরিশাল বুলসের ব্যাটসম্যানদের। চতুর্থ উইকেটে ৪১ বলে ৪৭ রানের জুটি গড়ে তোলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও নাদিফ চৌধুরী। ইনিংস সর্বোচ্চ ৩৬ খেলে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এবারের বিপিএলে ৩০০ রান স্পর্শ করেছেন মুশফিকুর রহিম। ৭ম উইকেট জুটিতে ১৯ বলে অবিচ্ছিন্ন ৩৪ রান করে বরিশালকে ১৩২ রানে পৌঁছে দেন রুম্মান রইস ও থিসারা পেরেরা।