বরিশাল বুলসের বিপক্ষে ৬১ বলে ১২২ রানের মহাকব্যিক ইনিংস খেলার পর সাব্বির রহমান বলেছিলেন, “টি-টোয়েন্টি আমারই ফরম্যাট।” কথাটা এমনি এমনি বলেননি তিনি। টি-টোয়েন্টি হাত উপুড় করে সাব্বিরকে অনেক কিছু দিয়েছে। এই সিঁড়িতে পা দিয়েই আস্তে আস্তে টেস্ট ক্রিকেটের গন্তব্যে পৌঁছেছেন তিনি। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে এ বছরটা দুর্দান্ত গেছে সাব্বিরের। রানের দিক থেকে  তিনি এ বছর আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তৃতীয় অবস্থানে আছেন। সর্বকালের মধ্যে যা আবার ষষ্ঠ সর্বোচ্চ।



এ বছর ১৬টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৪৬৩ রান করেছেন সাব্বির রহমান। ১৮ ম্যাচে ৪৯৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। ১৫ ম্যাচে ৬৪১ রান নিয়ে সবার ওপরে বিরাট কোহলি। সাব্বির ছাড়া শীর্ষ দশে নেই আর কোনো বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান। ১১ ম্যাচে ৩৬৮ রান নিয়ে ১১তম অবস্থানে আছেন তামিম ইকবাল। 




 

২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে শীর্ষ পাঁচ রান সংগ্রাহক

খেলোয়াড় দল ম্যাচ  রান
বিরাট কোহলি ভারত  ১৫ ৬৪১
রোহিত শর্মা ভারত ১৮ ৪৯৭
সাব্বির রহমান  বাংলাদেশ ১৬ ৪৬৩
গ্লেন ম্যাক্সওয়েল অস্ট্রেলিয়া ১১ ৪৩৫
হ্যামিল্টন মাসাকাদজা জিম্বাবুয়ে ১২ ৪১১

                              

                            

২০১৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় সাব্বির রহমানের। বলটাকে পেটাতে ভালোবাসেন, দারুণ ফিল্ডিং করেন এবং প্রয়োজনে লেগ স্পিন বল করতে পারেন- নির্বাচকদের চোখে এই ছিল সাব্বির রহমানের প্রোফাইল। শুরুতে ব্যাট করতেন লোয়ার অর্ডারে, সেখান থেকে এ বছর তাঁকে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে তিন নম্বরে। সেখানেই নিজেকে দারুণভাবে চেনান তিনি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেই সিরিজের চার ম্যাচে ১৪০ রান করেন সাব্বির। তবে নিজের সামর্থ্যের সবচেয়ে বড় প্রমাণ তিনি রেখেছেন এ বছরের এশিয়া কাপে। ৫ ম্যাচে ১৭৬ রান করে টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছিলেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছিলেন ৫৪ বলে সর্বোচ্চ ৮০ রানের একটি বিস্ফোরক ইনিংস।



এ বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলে বাংলাদেশ। সে টুর্নামেন্টে ৭ ম্যাচে ১৪৭ রান করেন সাব্বির। ২৬ বলে সর্বোচ্চ ৪৪ রান ওমানের বিপক্ষে।



আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির এই অনবদ্য ফর্ম সাব্বির ধরে রেখেছেন এবারের বিপিএলেও। এখন পর্যন্ত ৭ ম্যাচে ২১০ রান করে রান সংগ্রহের দিক থেকে ষষ্ঠ অবস্থানে আছেন রাজশাহী কিংসের এই ব্যাটসম্যান। সর্বোচ্চ বরিশাল বুলসের বিপক্ষে সেই অনবদ্য ১২২। শুধু রান নয় ছক্কা মারার দিক থেকেও অনন্য সাব্বির। ১৩টি ছক্কা মেরে ঢাকা ডায়নামাইটসের মেহেদী মারুফের সঙ্গে যুগ্মভাবে শীর্ষে আছেন ২৫ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান।


টি-টোয়েন্টি সাব্বির রহমানকে নিয়ে এসেছিল জাতীয় দলের সিংহদ্বারে। সেখানে নিজেকে প্রমাণ করে ওয়ানডে দলের অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিণত করেছেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটেও শুনিয়েছেন নিজের আগমনী সঙ্গীত। মাঠের বাইরে যে সাব্বির সদাহাস্যময়, ব্যাটহাতে তিনিই যেন পরিণত হন থ্রিলার গল্পের কোনো খুনে চরিত্রে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে সাব্বির রহমানের আবির্ভাব পূরণ করেছে পেশীবহুল ব্যাটিংয়ের এমন এক শুন্যতা যা অনেক দিন ধরেই তাড়িয়ে বেরিয়েছে লাল-সবুজের দলটিকে।