আস্থা অর্জন করেই জাতীয় দলে নাসির!!

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এক সময়ের নিয়মিত সদস্য নাসির হোসেন জাতীয় দলের জার্সিতে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ঘরের মাটিতে ২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপর থেকে বিগত কয়েক সিরিজে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপানো তো দূরের কথা তিনি সুযোগই পাননি জাতীয় দলের স্কোয়াডে। কিন্তু এতে থেমে যাননি নাসির হোসেন। নিজেকে প্রমাণ করে আবারো নির্বাচকদের আস্থা অর্জন করে জায়গা করে নিয়েছেন জাতীয় দলের স্কোয়াডে।

দল থেকে বাদ পড়ার পর ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত খেলেছেন নাসির হোসেন। ব্যাটও হেসেছে তাঁর। বিসিএলে অনবদ্য ২০০ রানের ইনিংস খেলার পাশাপাশি ইমার্জিং কাপে ব্যাটের সাথে বল হাতেও ধারাবাহিকতা বজায় রাখা, ডিপিএলে আদর্শ অলরাউন্ডারের ছাপ রাখা নজর এড়ায়নি নির্বাচকদের। এরই ফল হিসেবে ফের জাতীয় দলে ফিরে পেলেন হারানো জায়গা।

ঘরোয়া ক্রিকেটে সাম্প্রতিক সময়ের পারফরম্যান্সের কারণেই আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে জায়গা দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘নাসির ভালো করছে। ও ইমার্জিং কাপে ভাল খেলেছে, ও ঘরোয়া ক্রিকেটে যথেষ্ট ভাল খেলেছে। ও যেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের আবহ থেকে দূরে সরে না যায়, এই জন্য ইমার্জিং কাপে তাকে নেওয়া হয়েছিল। ওর মনোযোগে আমরা সন্তুষ্ট। এজন্য আবার ও সুযোগ পেয়েছে।’

সেই সাথে বিগত সিরিজগুলোতে কেন তাঁকে দলে রাখা হয়নি এসময় এরও ব্যাখ্যা দেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। তিনি বলেন, ‘সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একই পজিশনে ছিল। সাব্বিরকে তিনে নেওয়া হয়েছে। এখন মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেকের পর নাসির হোসেন। এ তিনজন থেকেই আমরা ছয় ও সাত নম্বর খেলোয়াড় বাছাই করবো। এই জন্য তাকে প্রস্তুত করতে হবে।’

উল্লেখ্য, স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড, বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের অংশগ্রহণে আগামী ১২মে থেকে শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ।

Advertisements

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s