১০৫৩ রানে ঝালিয়ে নিয়ে আসল লড়াইয়ে বাংলাদেশ

999a4b28d8b300a37633ea507156678e-59143afac9591.jpg

স্টরমন্টের সিভিল সার্ভিস ক্রিকেট ক্লাবে গতকালের প্রস্তুতি ম্যাচে সাব্বির-তামিমদের তাণ্ডবে আয়ারল্যান্ড উলভস (আয়ারল্যান্ড ‘এ’) উড়ে গেছে! বাংলাদেশের দেওয়া ৩৯৫ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ‘নেকড়ে’র দল গুটিয়ে গেছে ১৯৫ রানে। প্রতিপক্ষ যেমনই হোক, ৩৯৪ রান মানসিকভাবে চাঙা করবে যেকোনো দলকে। তাই ত্রিদেশীয় সিরিজ বাংলাদেশ শুরু করতে যাচ্ছে ভীষণ আত্মবিশ্বাসী হয়ে।

ব্যাটিং-বোলিংয়ে যেভাবে চেয়েছে সেভাবেই ঝালিয়ে নিতে পেরেছে বাংলাদেশ। প্রস্তুতিটা ভালো হওয়ায় ভীষণ তৃপ্ত মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ দলের এই মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান ফেসবুকে লিখেছেন, ‘ত্রিদেশীয় সিরিজে আত্মবিশ্বাস বাড়াতে এটা ছিল যথার্থ এক প্রস্তুতি ম্যাচ। আমরা ছন্দটা ধরে রাখতে উন্মুখ।’

2618abce66c2ca087383472eb9708874-59143afac9504.jpg

সাসেক্সে বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে ডিউক অব নরফোক একাদশের বিপক্ষে বাংলাদেশের বোলাররা পুরোপুরি বোলিং করতে পারেনি। তবে হোভের সেন্ট্রাল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে সাসেক্স একাদশকে তাসকিন-সানজামুলরা ১৮০ রানে অলআউট করে দিয়েছিল প্রতিপক্ষকে। কাল আয়ারল্যান্ড উলভসও বাংলাদেশের বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে পুরো ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে পারেননি। খামতি বলতে, কোনো বোলারই ম্যাচে ৪ বা ৫ উইকেট পাননি। কিন্তু দুই প্রতিপক্ষকে অলআউট করে দেওয়াটা নিশ্চয়ই আরও ভালো করতে অনুপ্রাণিত করবে বোলারদের। আইপিএলে খেলতে যাওয়ায় একটু দেরিতে জাতীয় দলের অনুশীলনে যোগ দেওয়া মোস্তাফিজুর রহমানের প্রস্তুতি ম্যাচে বোলিংও (২/১৭) আশা জোগাচ্ছে।

47d9202a840841ab5abfd8399cfa34f3-5913ef4058e9b.jpg

তবে সাসেক্স ও আয়ারল্যান্ডের তিনটি ম্যাচে ব্যাটিং অনুশীলনটা হয়েছে আরও ভালো। ডিউক অব নরফোক একাদশের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ৩৪৫, সাসেক্স একাদশের বিপক্ষে ৯ উইকেটে ৩১৪ আর কাল প্রায় ৪০০ ছুঁই ছুঁই স্কোর—তিন ম্যাচে বাংলাদেশ তুলেছে ১০৫৩ রান। এর চেয়ে ভালো ব্যাটিং প্রস্তুতি আর কী হতে পারে! ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স যদি দেখেন, নিয়মিত রান পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম (১৩৪*, ৪০ ও ৪১)। মুশফিকের মতো তিন অঙ্ক ছুঁয়েছেন সাব্বির রহমানও। অবসর না নিলে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি পেতে পারতেন ইমরুল কায়েসও (৯২)। ফিফটি পেয়েছেন তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার। কাল দুদ্দাড় পিটিয়ে হাত মকশো খারাপ হয়নি মাহমুদউল্লাহরও, করেছেন ৩১ বলে ৪৯ রান। মোস্তাফিজের মতো একটু দেরিতে জাতীয় দলের প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দেওয়া সাকিব আল হাসানও রান (৪৪) পেয়েছেন। বোলিংটাও খারাপ হয়নি তাঁর, ৩২ রানে পেয়েছেন ২ উইকেট।

প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি নেই, এবার সময় এসেছে মাশরাফিদের মূল মঞ্চে আলো ছড়ানোর।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s