৩২১ পেরিয়ে শ্রীলঙ্কার জয়!!

2aa10a51f10006e017b64ef3fc72f8a0-5939b0e4caa21

ইতিহাস পক্ষে ছিল না শ্রীলঙ্কার। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ইতিহাসে ৩০৬ রানের বেশি লক্ষ্য তাড়া করে আগে জেতেনি কোনো দল। কাল ওভালে শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য ছিল আরও বড়—৩২২। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেবারিট ভারতের বিপক্ষে সেই ম্যাচটাই কী অনায়াসেই না জিতে গেল ‘পুঁচকে’ শ্রীলঙ্কা। ৮ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখে জিতেছে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দল। শ্রীলঙ্কার এই জয়ে পুরোপুরিই উন্মুক্ত হয়ে গেল ‘বি’ গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে ওঠার লড়াই।

গ্রুপের শেষ দুটি ম্যাচ এখন কার্যত কোয়ার্টার ফাইনাল। ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের জয়ী দল দুটিই উঠে যাবে সেমিফাইনালে। দুটি ম্যাচই টাই কিংবা পরিত্যক্ত হলে অবশ্য স্থান নির্ধারিত হবে নেট রান রেটের হিসাবে।

কাল দক্ষিণ লন্ডনের আকাশে ছিল মেঘের ঘনঘটা। টস জিতে তাই ফিল্ডিং নিলেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। কিন্তু লঙ্কান বোলাররা কন্ডিশনের সুবিধা নিতে পারলেন কই! ভারতের রান তো ঠিকই তিন শ পেরিয়ে গেল। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩১৯ রানের পর কাল ওভালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩২১ করেছে ভারতীয়রা। এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বোচ্চ দুটি দলীয় ইনিংসই ভারতের।

ম্যাচ শেষে অবশ্য সর্বোচ্চ ইনিংসটা ভারতের কাছ থেকে কেড়ে নিল শ্রীলঙ্কা। রান তাড়ায় লঙ্কানরা ১১ রানেই হারিয়েছিল ওপেনার নিরোশান ডিকভেলাকে। সেখান থেকেই শ্রীলঙ্কার রানটাকে ১৭০ রানে নিয়ে যায় দানুস্কা গুনাতিলকা ও কুশল মেন্ডিসের দ্বিতীয় উইকেট জুটি। ৭২ বলে ৭৬ রান করে রানআউট হয়েছেন গুনাতিলকা। ২৬ রান পর রানআউট মেন্ডিসও (৮৯)। জোড়া এই রানআউটের পর দলকে আর বিপদে পড়তে দেননি এই ম্যাচেই ফেরা অধিনায়ক ম্যাথুস। রান-বলের হিসাবটা মিলিয়ে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন।

দিনের শুরুতে ভারতীয় ইনিংসের গতিপথটা ঠিক করে দিয়েছিল লাসিথ মালিঙ্গার করা প্রথম বলটাই। অফ স্টাম্পের বাইরে করা শর্ট বলটাকে পয়েন্ট দিয়ে সীমানাছাড়া করলেন রোহিত শর্মা। সেই শুরু, রোহিত থামলেন শিখর ধাওয়ানকে নিয়ে উদ্বোধনী জুটিতে ১৩৮ রান যোগ করার পর। রোহিত-ধাওয়ান ওয়ানডেতে এ নিয়ে টানা তিন ইনিংসে সেঞ্চুরি জুটি গড়লেন।

রোহিত যতক্ষণ ছিলেন, সহযোগী হয়েই ছিলেন ধাওয়ান। জুটিতে রোহিতের অবদান ৭৮, ধাওয়ানের ৫১। রোহিতের বিদায়ের এক ওভার পর কোনো রান না করেই আউট অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ২০১৪ সালের পর ওয়ানডেতে কোহলির এই প্রথম শূন্য। কাল ব্যর্থ যুবরাজ সিংও (৭)। সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে এরপর ৮২ রান যোগ করা ধাওয়ান ফিরেছেন সেঞ্চুরি করে। ৬৯ বলে ফিফটি করা ধাওয়ান দশম ওয়ানডে সেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন ১১২ বলে। শেষ ১০ ওভারে ১০৩ রান তুলেছে ভারত।

Advertisements

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s