মাশরাফির এক সিদ্ধান্ত বদলে দিয়েছিল ম্যাচের রং

9785afe080d6deba7d0ac7d31520c005-593af7969efbf.jpg

নিউজিল্যান্ড ইনিংসের ৪২তম ওভারে এসে হঠাৎ করে মোসাদ্দেক হোসেনের হাতে বল তুলে দিতেই তো থেমে গেল নিউজিল্যান্ডের রান ফোয়ারা। ১২ বলের মধ্যে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে মোসাদ্দেক নিউজিল্যান্ডে রানের চাকার ফাঁস পরালেন। না হলে নিউজিল্যান্ডের স্কোর তিন শর দিকে ভালোমতোই ছুটছিল। অধিনায়ক মাশরাফির এমন পাশার দান আরও অনেক বার লেগেছে। কিন্তু ম্যাচের ভাগ্য বদলে দেওয়া সেই সিদ্ধান্ত মাশরাফি হুট করে নেননি। অনেক ভেবেচিন্তেই নিয়েছেন বলে জানালেন ম্যাচ শেষে। পরিকল্পিত এক সিদ্ধান্তই ছিল মোসাদ্দেককে স্লগ ওভারে বোলিং করানো।

সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহর অবিশ্বাস্য এক জুটিতেই ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ, এটা মেনে নিচ্ছেন সবাই। তবে কঠিন উইকেটে বাংলাদেশ যে রান তাড়া করার স্বপ্ন দেখতে পারল তার প্রথম কৃতিত্ব মোসাদ্দেকের। তিন ওভারে মাত্র ১৩ রানে নিউজিল্যান্ডের মিডল অর্ডার ধসিয়ে দিয়েছেন এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার।

পুরো ম্যাচে তাঁকে বল না দিয়ে ৪২তম ওভারে ডেকে আনায় বিস্মিত হয়েছেন সবাই। ইয়ান বিশপও তাঁদের একজন। ম্যাচ পরবর্তী অনুষ্ঠানে তাই আলাদা করেই প্রশ্ন রেখেছেন মাশরাফির কাছে। তখনই জানা গেছে মাশরাফির সেই পরিকল্পনার কথা, ‘সে নিউজিল্যান্ডে জিমি নিশামকে দুইবার আউট করেছিল, কোরি অ্যান্ডারসনকেও একবার। আমার কাছে এটা খুব বড় ব্যাপার মনে হয়েছে। আমি তাই অপেক্ষায় ছিলাম, কখন বাঁহাতিরা আসবে। বাঁহাতি ব্যাটসম্যানরা একবার উইকেটে আসার পর, আমার জন্য খুব সহজ সিদ্ধান্ত ছিল এটি। আমি সে সু্যোগের অপেক্ষাতেই ছিলাম।’

এখানেই নিজেকে আলাদা করে চেনালেন মাশরাফি। অধিনায়কত্ব মানে যে অন্ধকারে ঢিল ছোড়া নয়, কিংবা বাজি ধরে ভাগ্যের সহায়তা আশা করা নয়, সেটাই আরেকবার জানিয়ে দিলেন ‘ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক’।

Advertisements

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s